1. nasiralam4998@gmail.com : admi2017 :
মঙ্গলবার, ২৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ০৩:৫৮ পূর্বাহ্ন

ঢালিউড কিং শাকিব খানের পরবর্তী সিনেমা ‘রাজকুমার’

  • আপডেট টাইম : রবিবার, ২৪ ডিসেম্বর, ২০২৩
  • ৪৮ বার

ঢালিউড কিং শাকিব খানের পরবর্তী সিনেমা ‘রাজকুমার’। এতে তার সঙ্গে জুটি বেঁধে অভিনয় করছেন মার্কিন মডেল-অভিনেত্রী কোর্টনি কফি। চলতি মাসে ঢাকায় এসে সিনেমাটির শুটিংয়ে অংশও নেন তিনি। আর এই জার্নিতে শাকিবে মুগ্ধ হয়েছেন কোর্টনি কফি।

কোর্টনি কফি তার ফেসবুকে একটি ভিডিও বার্তা দিয়েছেন। এতে শাকিবের প্রশংসায় পঞ্চমুখ এই অভিনেত্রী। কোর্টনি কফি বলেন, বাংলাদেশে যাওয়ার পর বুঝতে পেরেছি শাকিব খানের সিনেমার অনেক ভক্ত রয়েছে। যদিও চুক্তিবদ্ধ হওয়ার আগে জানতাম না। শাকিব খানের জন্মদিনে আমি ও হিমেল অংশ নিয়েছিলাম। সেখানে হিমেল আমাকে সিনেমাটির বিষয়ে জানান। এতে আমার আগ্রহ তৈরি হয়। এর চেয়ে বেশি কিছু জানতাম না। এমনকি এটাও জানতাম না যে শাকিব খান এত বড় একজন স্টার। এখনো আমার আমেরিকান বন্ধুরা বিশ্বাস করতে পারছে না যে, আমি এই সিনেমা করছি।’

শাকিব খানের প্রশংসা করে কোর্টনি কফি বলেন, ‘শাকিব খান বাংলাদেশে হলিউডের টম ক্রজের মতো জনপ্রিয়। শাকিব খান খুবই পেশাদার মানুষ। কাজের ব্যাপারে মনোযোগী, সহশিল্পী হিসেবে পারফেক্ট এবং শুটিং সেটে সে খুবই মজা করে। তার সঙ্গে কাজের অভিজ্ঞতা দারুণ। শুটিংয়ের সেরা অভিজ্ঞতা শাকিবের সঙ্গে বিয়ের দৃশ্য।’

বাংলাদেশের মানুষের আতিথেয়তার প্রশংসা করে কোর্টনি কফি বলেন, ‘আমি যখন বাংলাদেশে আসার জন্য বিমানে উঠেছিলাম, তখন বার বার মনে হচ্ছিল অদ্ভুত এক অভিজ্ঞতার মুখোমুখি হতে যাচ্ছি। এখন পর্যন্ত সবকিছু চমৎকার। আমি যা ভেবেছিলাম, মনে হচ্ছে তার চেয়েও বেশি অ্যামেজিং। অন্যান্য দেশে আইফেল টাওয়ারের মতো বিখ্যাত কিছু আছে। কিন্তু বাংলাদেশের মানুষের অনেক বড় মন আছে। আমি মনে করি, বাংলাদেশের মানুষ হৃদয় দিয়ে এদেশকে গ্রেট রাষ্ট্র হিসেবে প্রতিষ্ঠিত করেছে। দেশটির বৃহৎ জনগোষ্ঠী এবং তাদের আপ্যায়ন টুরিস্টদের কাছে অন্যতম আকর্ষণ।’

‘বাংলাদেশের সিনেমাপ্রেমীরা কেমন তাও আমি বুঝতে পেরেছি! অন্য যেকোনো দেশের সিনেমাপ্রেমীদের চেয়ে বাংলা সিনেমার দর্শকরা এ দেশের সিনেমাকে অনেক বেশি সমর্থন ও উৎসাহ দিয়ে থাকেন। আমি ঘুরে ঘুরে দেখেছি, অনেক সিনেমাপ্রেমী আছেন যারা রীতিমতো সারপ্রাইজিং।’ বলেন কোর্টনি কফি।

হিমেল আশরাফ পরিচালিত ‘রাজকুমার’ সিনেমার মাধ্যমে ঢালিউডে অভিষেক হবে কোর্টনির; এটি তার প্রথম বাংলা সিনেমা। মার্কিন নাগরিক হওয়ায় বাংলা ভাষাও জানতেন না এই অভিনেত্রী। কিন্তু সিনেমাটির জন্য বাংলা ভাষা শিখছেন তিনি।

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের লং আইল্যান্ডের হিকসভিলে জন্মগ্রহণ করেন কোর্টনি, বেড়ে উঠেছেন সেখানে। পাঁচ ফুট চার ইঞ্চি উচ্চতার কোর্টনি নিউ ইয়র্কের দ্য নেইবারহুড প্লে হাউস স্কুল অব দ্য থিয়েটার থেকে গ্র্যাজুয়েশন সম্পন্ন করেন। বেশ কটি স্বল্পদৈর্ঘ্য ও ফিচার ফিল্মে অভিনয় করেছেন কোর্টনি।

নিউজটি শেয়ার করুন..

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর..