1. nasiralam4998@gmail.com : admi2017 :
রবিবার, ১৯ মে ২০২৪, ০৫:০৫ পূর্বাহ্ন

নির্বাচনী এলাকায় ডলি সায়ন্তনী, বরণ করলেন স্থানীয়রা

  • আপডেট টাইম : বৃহস্পতিবার, ১৪ ডিসেম্বর, ২০২৩
  • ৬০ বার

প্রার্থীতা ফিরে পেয়ে নিজ নির্বাচনী এলাকায় এসেই সাধারণ মানুষের ভালোবাসায় সিক্ত হলেন জনপ্রিয় কন্ঠশিল্পী ডলি সায়ন্তনী।

দ্বাদশ সংসদ নির্বাচনে বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী আন্দোলন (বিএনএম) এর মনোনয়নে সংসদ সদস্য প্রার্থী হয়ে পাবনা-২ আসনে ভোটের লড়াইয়ে নেমেছেন তিনি।

আনুষ্ঠানিক প্রচারণা শুরু না হলেও, বুধবার (১৩ ডিসেম্বর) তিনি সুজানগর ও আমিনপুরের সাধারণ মানুষের সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাতে আসেন।

সুজানগর উপজেলা পরিষদ ফটকে তাকে ফুলেল শুভেচ্ছায় বরণ করে নেন স্থানীয়রা। পরে সুজানগর উপজেলা চেয়ারম্যান শাহীনুজ্জামান শাহীনের সাথে শুভেচ্ছা বিনিময় করেন তিনি। এ সময় নির্বাচনকে উৎসবমুখর ও সুষ্ঠু করতে পরস্পরকে সহযোগীতার অঙ্গীকার করেন তারা।

সুজানগর উপজেলা চেয়ারম্যান শাহীনুজ্জামান শাহীন বলেন, বাংলাদেশের নির্বাচনকে প্রশ্নবিদ্ধ করতে একটি মহল তৎপর। ভিন্ন দলের প্রার্থী হলেও ডলি সায়ন্তনীকে নির্বাচনের মাঠে সুশৃঙ্খল পরিবেশ উপহার দেওয়ার মধ্য দিয়ে একটি অবাধ নির্বাচনের চিত্র বিশ্ববাসীর কাছে তুলে ধরা হবে। নির্বাচনে নিজের দলের হয়ে তো অবশ্যই ভূমিকা রাখতে হবে, একইসাথে ডলি সায়ন্তনী বা ভিন্ন দলের কোনো প্রার্থী যেকোনো ধরণের সহায়তা চাইলে আমরা তাকে সেটুকু দেওয়ার চেষ্টা করবো।

শুভেচ্ছা বিনিময় শেষে ডলি সায়ন্তনী সুজানগর উপজেলার বিভিন্ন শ্রেণিপেশার মানুষের সাথে মতবিনিময় করেন। এ সময় স্থানীয়দের অনুরোধে গানও গেয়ে শোনান তিনি।

বিকেলে আমিনপুর থানার ভাটিকয়া গ্রামে গুচ্ছগ্রামের বাসিন্দাদের সাথে সৌজন্য সাক্ষাৎ করেন। জনপ্রিয় এই তারকাকে কাছে পেয়ে আবেগাপ্লুত গ্রামবাসী ভোটের মাঠে ডলিকে স্বাগত জানিয়ে সহযোগিতার আশ্বাস দেন।

এ ব্যাপারে গুচ্ছগ্রামের বাসিন্দা চামেলী বেগম বলেন, ‘উনার সাথে কিছুক্ষণ মিশলাম। উনি আমাদের নানা অসুবিধার কথা শুনলেন, তার মধ্যে কোনো অহংকার নেই। সমস্যার কথা শুনে সেগুলো সমাধানে আমাদের সহযোগিতাও করবেন বলে জানিয়েছেন। উনি একজন ভালো মানুষ, আমরা তার পাশে থাকবো।’

একই গ্রামের সালমা খাতুন বলেন, ‘তিনি আমার প্রিয় শিল্পী। তার গানের আমি ভক্ত। তার সুন্দর ব্যবহার, মানুষের জন্য কাজ করার ইচ্ছা আমাদের মুগ্ধ করেছে।’

ডলি সায়ন্তনী বলেন, ‘প্রার্থীতা বাতিল হওয়ার পর আমি এলাকার মানুষের ফোনে সাহস পেয়েছি, তার চেয়েও বেশি ভালবাসা পেলাম এখানে সবার কাছে এসে। এতো সহজে তারা আমাকে আপন করে নেবেন ভাবতে পারিনি।’

তিনি বলেন, ‘এলাকাবাসীর এই ভালবাসাই আমার শক্তি। এদের ভালবাসায় নির্বাচনে আমি বিজয় নিয়ে আশাবাদী।’

এর আগে গত ৩ ডিসেম্বর ক্রেডিট কার্ড সংক্রান্ত খেলাপি ঋণ জটিলতায় ডলির প্রার্থীতা বাতিল করেন জেলা রিটার্নিং অফিসার। ঋণ পরিশোধ করে ইসিতে আপিল করলে গত ১০ ডিসেম্বর প্রার্থীতা ফিরে পান ডলি সায়ন্তনী।

নিউজটি শেয়ার করুন..

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর..