1. nasiralam4998@gmail.com : admi2017 :
সোমবার, ২৪ জুন ২০২৪, ০৬:৪২ পূর্বাহ্ন

রাজধানীতে ঢিলেঢালা হরতাল, ছাড়েনি দূরপাল্লার বাস

  • আপডেট টাইম : রবিবার, ১৯ নভেম্বর, ২০২৩
  • ৪৫ বার

আওয়ামী লীগ সরকারের অধীনে নির্বাচনের তফসিল ঘোষণার প্রতিবাদে সারা দেশে চলছে বিএনপি-জামায়াতসহ সমমনা বিভিন্ন রাজনৈতিক দল ও জোটের ৪৮ ঘণ্টার হরতাল। রাজধানীতে এই হরতালের প্রভাব অনেকটাই ঢিলেঢালা।

নিত্যদিনের কার্যক্রম অনেকটাই স্বাভাবিক। মানুষ কর্মস্থলেও যাচ্ছে। যদিও বিভিন্ন এলাকায় গণপরিবহন তুলনামূলক কম দেখা গেছে। তবে সায়দাবাদ ও গাবতলীতে থেকে দূরপাল্লার কোনো গাড়ি ছেড়ে যাচ্ছে না। সড়কে পুলিশের ব্যাপক উপস্থিতি দেখা গেছে।

রাজধানীর মিরপুর, ফার্মগেট, সায়েন্সল্যাব, মোহাম্মদপুর, গাবতলী ঘুরে দেখা গেছে, গাড়ির চাপ কম, তবে স্বাভাবিক দিনের মতোই মানুষজন ঘর থেকে বের হয়েছে। হরতাল থাকলেও সকালে অফিসগামী যাত্রীদের নির্বিঘ্নে এবং স্বাভাবিকভাবেই গন্তব্যে যেতে দেখা গেছে।

রাস্তায় বাস ও প্রাইভেটকারের চলাচল কম। তবে রিকশা ও সিএনজিচালিত অটোরিকশা চলছে নির্বিঘ্নে। এছাড়া অধিকাংশ দোকানপাট খোলা দেখা গেছে।

স্বাভাবিক কর্মদিবসগুলোতে অফিস শুরুর এই সময়ে সড়কে প্রচুর যানবাহনের চাপ থাকে। গণপরিবহনগুলো থাকে যাত্রীতে ঠাসা। কিন্তু হরতালের কারণে সড়কে যানবাহনের সেই চাপ দেখা যায়নি। সড়কে গণপরিবহন কম থাকায় বিভিন্ন স্থানে যাত্রীদের বাসের জন্য অপেক্ষা করতে দেখা গেছে। তবে বেশিরভাগ বাসে যাত্রীর ভিড় নেই। ফলে অনেকটা স্বস্তিতেই গন্তব্যে যেতে পারছেন অফিসগামী যাত্রীরা।

মিরপুর-১৩ ও ১১ নম্বর সেকশনের তৈরি পোশাক কারখানাগুলো কয়েকদিন বন্ধ থাকার পর আবার খুলেছে। শ্রমিকরা কাজে ফিরেছেন। ফলে হরতালের মধ্যেই মিরপুরের এই পোশাক শিল্প এলাকা আবার কর্মচঞ্চলতায় মুখর।তবে, গাবতলী বাস টার্মিনালে দেখা গেছে ভিন্ন চিত্র। এ দিন এই বাসস্ট্যান্ড থেকে দূরপাল্লার কোনো বাস ছেড়ে যায়নি। কোচগুলো সব টার্মিনাল, তেলের পাম্প ও আশপাশে পার্ক করা। অধিকাংশ টিকিট কাউন্টারগুলোয় কোনো মানুষ নেই। কোনো যাত্রীরও দেখা পাওয়া যায়নি। হরতালে টার্মিনালকেন্দ্রিক কোনো দোকান খুলেনি। অন্য কর্মদিবসে এ সব দোকানে পরিবহন শ্রমিক, যাত্রী, হকারে সরব থাকে।

একই পরিস্থিতি রাজধানীর অন্য টার্মিনাল মহাখালীতেও।

এসব পরিবহনগুলো থেকে অন্য দিন সকাল সাড়ে ৮টার মধ্যে গড়ে আটটি গাড়ি ছেড়ে যায়। আজ কোনো গাড়ি ছেড়ে যায়নি। যাত্রী এলে বিকেলে দুয়েকটি গাড়ি ছেড়ে যেতে পারে বলে কেউ কেউ জানিয়েছেন।

উল্লেখ্য, গত ২৮ অক্টোবর ঢাকার নয়াপল্টনে বিএনপির মহাসমাবেশ পুলিশ পণ্ড করে দেওয়ার পর সরকারের পদত্যাগের একদফা দাবিতে বিএনপিসহ সমমনা জোটগুলো ২৯ অক্টোবর সারা দেশে সকাল-সন্ধ্যা হরতাল পালন করে। এরপর পাঁচ দফায় ১১ দিন পর্যায়ক্রমে সারা দেশে অবরোধ কর্মসূচি পালিত হয়েছে। যা শেষ হয় গত শুক্রবার (১৭ নভেম্বর) ভোর ৬টায়।

নিউজটি শেয়ার করুন..

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর..