1. nasiralam4998@gmail.com : admi2017 :
সোমবার, ২৪ জুন ২০২৪, ০৬:২৫ পূর্বাহ্ন

নতুন উচ্চতায় ভারত-বাংলাদেশ সম্পর্ক: ভারতের প্রধান্মন্ত্রী

  • আপডেট টাইম : বুধবার, ১ নভেম্বর, ২০২৩
  • ৬০ বার

পারস্পারিক সহযোগিতার ক্ষেত্রে বাংলাদেশ-ভারত সম্পর্ক অন্য যেকোনো সময়ের তুলনায় নতুন উচ্চতায় রয়েছে মন্তব্য করে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি বলেছেন, বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় উন্নয়ন সহযোগী হিসেবে ভারত গর্বিত।

বুধবার (১ নভেম্বর) যৌথভাবে বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি তিনটি প্রকল্পের উদ্বোধন করেন।

এ সময় বক্তব্য রাখতে গিয়ে ভারত-বাংলাদেশ সম্পর্ক নিয়ে এই মন্তব্য করেন নরেন্দ্র মোদি। এর আগে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা তার বক্তব্যে বলেন, বাংলাদেশ ভারতের সঙ্গে সম্পর্কোন্নয়নে সর্বাধিক গুরুত্ব দেয়। প্রতিবেশী দেশের সঙ্গে সম্পর্ক রাখলে দেশের উন্নতি হয় আমরা সেটিই প্রমাণ করেছি। আমি মনে করি বিশ্বের জন্য এটা একটা দৃষ্টান্ত।

বাংলাদেশের সঙ্গে ভারতের উত্তর-পূর্বাঞ্চলের রাজ্যগুলোর রেলযোগাযোগ স্থাপনের উদ্দেশ্যে তৈরি করা আন্তঃদেশীয় আখাউড়া-আগরতলা ডুয়েলগেজ রেলপথ, খুলনা-মোংলা পোর্ট রেলপথ নির্মাণ প্রকল্প এবং বাগেরহাটের রামপালে মৈত্রী সুপার থার্মাল পাওয়ার প্রজেক্ট যৌথভাবে উদ্বোধন করেন দুই দেশের প্রধানমন্ত্রী। তিনটি প্রকল্পই ভারতের অর্থায়নে বাস্তবায়ন হয়েছে।

অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা গণভবন থেকে এবং ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি তার বাসভবন থেকে অনুষ্ঠানে ভার্চুয়ালি যুক্ত ছিলেন।

নরেন্দ্র মোদি বলেন, ‘এটা আনন্দের বিষয় যে, আমরা আবারও ভারত-বাংলাদেশ সহযোগিতার সাফল্য উদযাপন করতে সংযুক্ত হয়েছি। আমাদের সম্পর্ক ক্রমাগত নতুন উচ্চতায় পৌঁছে যাচ্ছে। গত ৯ বছরে আমরা একসঙ্গে যে কাজ করেছি, তা আগের কয়েক দশকেও করা হয়নি।’

নরেন্দ্র মোদি বলেন, ‘সীমান্তে শান্তি, নিরাপত্তা এবং স্থিতিশীলতা প্রতিষ্ঠার জন্য আমরা স্থল সীমান্ত চুক্তি স্বাক্ষর করেছি। এটি কয়েক দশক ধরে ঝুঁলে ছিল। আমরা সমুদ্রসীমার বিরোধও সমাধান করেছি… গত ৯ বছরে ৩টি নতুন বাস পরিষেবা চালুর মাধ্যমে ঢাকা, শিলং, আগরতলা, গুয়াহাটি এবং কলকাতার মধ্যে সংযোগ স্থাপন করা হয়েছে…।’

ভারতের প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘গত ৯ বছরে ৩টি নতুন ট্রেন পরিষেবাও শুরু হয়েছে। ২০২০ সাল থেকে পার্সেল এবং কন্টেইনার ট্রেনগুলোও ভারত ও বাংলাদেশের মধ্যে চলছে… গঙ্গা বিলাস নামে বিশ্বের সবচেয়ে বড় প্রমোদতরী চালু করে ভারত ও বাংলাদেশের মধ্যে পর্যটনও চাঙ্গা করা হয়েছে…।’

গত ৯ বছরে আমাদের (বাংলাদেশ ও ভারতের) অভ্যন্তরীণ বাণিজ্য তিনগুণ বেড়েছে জানিয়ে নরেন্দ্র মোদি বলেন, আজ আখাউড়া-আগরতলা রেল সংযোগের উদ্বোধন একটি ঐতিহাসিক মুহূর্ত… এটি বাংলাদেশ ও ভারতের উত্তর-পূর্বাঞ্চলীয় রাজ্যগুলোর মধ্যে প্রথম রেল সংযোগ।

তিনি বলেন, ‘স্বাধীনতা সংগ্রামের দিনগুলোর সময় থেকেই বাংলাদেশের সাথে ত্রিপুরার দৃঢ় বন্ধন রয়েছে… আমি আনন্দিত যে, আমরা মৈত্রী তাপবিদ্যুৎ প্রকল্পের দ্বিতীয় ইউনিটও উদ্বোধন করেছি…।’

মোদি বলেন, ‘আমরা যে ‘সবকা সাথ সবকা বিকাশ’ (সবাইকে সঙ্গে নিয়ে সবার উন্নয়ন) নীতিতে বিশ্বাস করি, এটি আমরা আমাদের প্রতিবেশী দেশ বাংলাদেশের জন্যও বিবেচনা করি। আমরা বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় উন্নয়ন সহযোগী হিসেবে গর্বিত। গত ৯ বছরে ১০ বিলিয়ন মার্কিন ডলার সাহায্য প্রদান করা হয়েছে।’

তিনি বলেন, ‘আমাদের অর্জনের তালিকা অনেক দীর্ঘ… আজ যে তিনটি প্রকল্পের উদ্বোধন করা হয়েছে সেগুলোর ব্যাপারে আমরাই সিদ্ধান্ত নিয়েছি এবং আজ সেগুলো উদ্বোধন করার সুযোগও পেয়েছি। আমাদের যৌথ প্রচেষ্টার সাফল্যের জন্য আমি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করছি।’

নিউজটি শেয়ার করুন..

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর..