1. nasiralam4998@gmail.com : admi2017 :
রবিবার, ১৬ জুন ২০২৪, ০৯:৩৬ পূর্বাহ্ন

ইউরোপে বাড়ছে বর্ণবাদ এবং বিদেশি-বিদ্বেষ

  • আপডেট টাইম : বুধবার, ২৫ অক্টোবর, ২০২৩
  • ৬১ বার

ইউরোপে ‘ব্যাপক হারে ও অবিচ্ছিন্নভাবে’ বর্ণবাদ বাড়ছে। ইউরোপীয় ইউনিয়ন সদস্য দেশগুলোতে বৈষম্যের শিকার প্রায় অর্ধেক কৃষ্ণাঙ্গ ব্যক্তির ওপর চালিয়ে যে প্রতিবেদন তৈরি করেছে তাতে বলা হয়েছে, এই কৃষ্ণাঙ্গদের বাড়িভাড়া দিতে অনিচ্ছুক বাড়ির মালিকরা। এমনকি তাদের সন্তানরাও মৌখিক নির্যাতনের শিকার।

আফ্রিকা বংশোদ্ভূত মানুষের জন্য ইউরোপীয় ইউনিয়নের অধিকার সংস্থার একটি জরিপে জীবনের প্রতিটি ক্ষেত্রে, স্কুল থেকে চাকরির বাজার, আবাসন ও স্বাস্থ্য ব্যবস্থায়  উচ্চ স্তরের বৈষম্য পাওয়া গেছে। এই বৈষম্যের  কিছু খারাপ ফলাফল অস্ট্রিয়া ও জার্মানিতে রেকর্ড করা হয়েছে।

অস্ট্রিয়া, বেলজিয়াম, ডেনমার্ক, ফিনল্যান্ড, ফ্রান্স, জার্মানি, আয়ারল্যান্ড, ইতালি, লুক্সেমবার্গ, পোল্যান্ড, পর্তুগাল, স্পেন ও  সুইডেনে আফ্রিকা বংশোদ্ভূত ছয় হাজার ৭৫২ জন লোকের জরিপে দেখা গেছে ৪৫ শতাংশ জাতিগত বৈষম্যের শিকার হয়েছেন। ২০১৬ সালের তুলনায় এই হার ৬ শতাংশ বেড়েছে।

অস্ট্রিয়া ও জার্মানিতে প্রশ্ন করা চারজনের মধ্যে তিনজন (৭২ শতাংশ ও ৭৬ শতাংশ) জানিয়েছেন, তারা গত পাঁচ বছরে বৈষম্যের শিকার হয়েছেন। ২০১৬ সালে যখন একই প্রশ্ন জিজ্ঞাসা করা হয়েছিল তখন এই সংখ্যা ছিল ৫১ শতাংশ এবং ৫২ শতাংশ।

ইউরোপীয় ইউনিয়নের মৌলিক অধিকার বিষয়ক সংস্থা জানিয়েছে, জরিপে অংশ নেওয়া প্রতি চারজনের মধ্যে একজন (২৩ শতাংশ) উত্তরদাতা জানিয়েছেন, স্থানীয় বাড়ির মালিক জাতিগত বা জাতিগত উৎসের কারণে তাদের বাড়ি ভাড়া নিতে বাধা দিয়েছেন। এক চতুর্থাংশ (২৩ শতাংশ) কৃষ্ণাঙ্গ জানিয়েছেন, তাদের জাতিগত বা অভিবাসী পটভূমির কারণে ব্যক্তিগতভাবে তাদের সন্তানের প্রতি আপত্তিকর বা হুমকিমূলক মন্তব্য পেয়েছেন। আয়ারল্যান্ড (৩৯ শতাংশ), জার্মানি ও ফিনল্যান্ড (উভয় ৩৮ শতাংশ) এবং অস্ট্রিয়ার (৩৭ শতাংশ) পাঁচজন অভিভাবকের মধ্যে প্রায় দুইজন এই ধরনের অভিজ্ঞতার কথা জানিয়েছেন।

নিউজটি শেয়ার করুন..

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর..