1. nasiralam4998@gmail.com : admi2017 :
বৃহস্পতিবার, ৩০ মে ২০২৪, ০৮:৩৪ পূর্বাহ্ন

যশোরে সন্ত্রাসী হামলায় ইউপি সদস্য নিহত, আহত ৬

  • আপডেট টাইম : মঙ্গলবার, ২২ ফেব্রুয়ারী, ২০২২
  • ১৭০ বার
সন্ত্রাসী হামলায় ইউপি সদস্য নিহত, আহত ৬
প্রতীকী ছবি

অনলাইন ডেস্ক: যশোরের চৌগাছা উপজেলার পাতিবিলা ইউনিয়নে ঠাণ্ড বিশ্বাস (৫০) নামে এক ইউপি সদস্যকে কুপিয়ে হত্যা করেছে অজ্ঞাতনামা দুর্বৃত্তরা। সোমবার (২১ ফেব্রুয়ারি) রাত ৮টার দিকে পাতিবিলা বাজারে এ ঘটনা ঘটে।

নিহত ঠাণ্ড বিশ্বাস ওই গ্রামের সিরাজুল ইসলামের ছেলে। তিনি পাতিবিলা ইউনিয়নের ৪ নম্বর ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য।

আহতরা হলেন একই গ্রামের নিরঞ্জন কুমার ঘোষের ছেলে অসীম কুমার ঘোষ (৩২), মৃত গোলাম রাব্বানির ছেলে সিদ্দিক (৫০), আব্দুল মালেকের ছেলে আব্দুল হামিদ (৪৫), রুহুল আমিনের ছেলে টিটো (৩২), আব্দুল জলিলের ছেলে মকবুল (৩৫) এবং আব্দুল কাদেরের ছেলে মমিন(৪৫)।

যশোর জেলা পুলিশের গোয়েন্দা শাখায় (ডিবি) ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা রুপন কুমার সরকার এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন ।

যশোর ২৫০ শয্যা হাসপাতাল থেকে নিহত ঠাণ্ডু বিশ্বাসের ছেলে টিংকু বলেন, গত ইউপি নির্বাচনে ইউপি সদস্য পদে রুহুল আমিনকে হারিয়ে আমার বাবা জয় লাভ করেন। সেদিন থেকেই তারা আমার বাবার উপর প্রতিশোধ নেয়ার চেষ্টা চালাচ্ছে। ঘটনার দিন সন্ধ্যা সাড়ে সাতটার দিকে পাতিবিলা বাজারে একটি চায়ের দোকানে আমার বাবা, মমিন চাচারা চা খাচ্ছিল। এসময় সেই রুহুল আমিনের ছেলে টিটোসহ ফারুক সেলিমসহ আরও অনেকে আমার বাবার ওপর হামলা করে। টিটো আমার বাবাকে ছুরিকাঘাত করে। পরে তাদেরকে উদ্ধার করে উপজেলা মডেল স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ও পরে যশোর ২৫০ শয্যা হাসপাতালে নিয়ে আসি। সেখানেই আমার বাবার মৃত্যু হয়।

ইউপি সদস্যকে কুপিয়ে হত্যা

স্থানীয়রা জানান, আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে এ হামলার ঘটনা ঘটে। হামলার মূল অভিযুক্ত টিটো আগে থেকেই সন্ত্রাসী প্রকৃতির। আজকেও সেই টিটোসহ ফারুক, রওশনরা ঠাণ্ডু বিশ্বাসসহ অন্যান্যদের ওপর হামলা চালায়।

হামলায় আহত সিদ্দিক জানান, শনিবার বিকেল চারটার দিকে দোকান ভাড়া দেয়া নিয়ে টিটোর সঙ্গে বাবুর কথা কাটাকাটি হয়। দোকানটি বাবু টিটোর কাছে ভাড়া দিয়েছিলেন। পরে ঠাণ্ডু বিশ্বাস সেই বিবাদ মেটানোর চেষ্টা করেন। তারই রেশ ধরে আজকের (সোমবার) সন্ধ্যায় মাগরিবের নামাজের পরে আমি আর ঠাণ্ডু বিশ্বাস নেছারের চায়ের দোকানে বসে চা খাচ্ছিলাম। সেসময় পেছন থেকে এসে টিটো, সেলিম আর রুলু প্রথম আক্রমণ করে।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে ঘটনাস্থলে থাকা চৌগাছা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সাইফুল ইসলাম সবুজ বলেন, কেবল একটি ঘটনা নয়। এর পেছনে আরও কয়েকটি ঘটনা থাকতে পারে বলে প্রাথমিকভাবে জানতে পেরেছি। সঠিক তদন্ত ছাড়া প্রকৃত কারণ বলা এখনই সম্ভব নয়। এ ঘটনায় দুই-তিনজন পথচারীও হামলার শিকার হয়েছেন। প্রতিবেদনটি লেখার সময় পর্যন্ত হামলায় জড়িত রুহুল আমিন রুলু, কবির ও রওশনকে গ্রেপ্তার করেছে চৌগাছা থানা পুলিশ। গ্রেপ্তারের বিষয়টি চৌগাছা থানার ওসি সাইফুল ইসলাম সবুজ নিশ্চিত করেছেন।

দর্শনানিউজ২৪/এম.এইচ

 

নিউজটি শেয়ার করুন..

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর..