1. nasiralam4998@gmail.com : admi2017 :
শনিবার, ২০ এপ্রিল ২০২৪, ০২:২৫ অপরাহ্ন

রাজশাহীতে ওসির বিরুদ্ধে কনস্টেবলকে প্রাণনাশের হুমকি

  • আপডেট টাইম : সোমবার, ৫ জুলাই, ২০২১
  • ২১৩ বার
কনস্টেবলকে প্রাণনাশের হুমকি
রাজশাহী নগরীর বোয়ালিয়া মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) নিবারণ চন্দ্র বর্মণ

রাজশাহী প্রতিনিধি : রাজশাহী নগরীর বোয়ালিয়া মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) নিবারণ চন্দ্র বর্মণের বিরুদ্ধে একই থানার এক কনস্টেবলকে প্রাণনাশের হুমকি ও অশ্লীল ভাষায় গালিগালাজ দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে। হুমকির শিকার ভুক্তভোগী কনস্টেবল মনিরুল ইসলামের স্ত্রী রাজিয়া সুলতানা রিতা ওসির বিচার চেয়ে রাজশাহী মহানগর পুলিশ (আরএমপি) কমিশনারের কাছে লিখিত অভিযোগ দাখিল করেছেন। পুলিশ কমিশনার অভিযোগটি তদন্তের জন্য আরএমপির উপ-কমিশনার রশিদুল হাসানের ওপর দায়িত্ব দিয়েছেন। তিনি ইতোমধ্যে তদন্ত শুরু করেছেন বলে বলে জানা গেছে। এদিকে ওসির হুমকির ভয়ে মানসিকভাবে বিপর্যস্ত হয়ে পড়ায় ভুক্তভোগী কনস্টেবল মনিরুল ইসলাম গত রোববার নগরীর কাশিয়াডাঙ্গা থানায় যোগ দিয়েছেন।

ভুক্তভোগীর স্ত্রীর লিখিত অভিযোগ মতে, গত ২৬ জুন বেলা প্রায় ১১টার দিকে বোয়ালিয়া মডেল থানার কনস্টেবল মনিরুল ইসলামকে থানার ভেতরে অন্যান্য পুলিশ সদস্যদের সামনে প্রকাশ্যে প্রাণনাশের হুমকি প্রদান ও অশ্লীল ভাষায় গালিগালাজ করেন ওসি। এসময় কনস্টেবল মনিরুল ইসলাম ওসির হুমকির ভয়ে অসুস্থ হয়ে পড়েন। পরে থানার অন্যান্য পুলিশ কর্মকর্তা ও সদস্যরা তাকে তাৎক্ষণিকভাবে ওসির গাড়িতে করে রাজশাহী পুলিশ হাসপাতালে নিয়ে গিয়ে ভর্তি করেন। চিকিৎসক পরীক্ষা নিরীক্ষা করে কনস্টেবল মনিরুলকে তিনদিনের বিশ্রামে থাকার পরামর্শ দেন।

এদিকে, ওসি নিবারণ চন্দ্র বর্মণ কর্তৃক প্রাণনাশের হুমকির অভিযোগে কনস্টেবল মনিরুল ইসলামের স্ত্রী বোয়ালিয়া থানায় একটি সাধারণ ডায়েরিও (জিডি) করেছেন। রাজিয়া সুলতানা রিতা তার অভিযোগে আরও বলেন, ওসি নিবারণ চন্দ্র বর্মণ আমার স্বামীকে প্রকাশ্যে অশ্লীল ভাষায় গালিগালাজ ও প্রাণনাশের হুমকি দেওয়ায় তিনি মানসিকভাবে বিপর্যস্ত হয়ে পড়েছেন।

ঘটনা সম্পর্কে জানতে চাইলে ভুক্তভোগী কনস্টেবল মনিরুল ইসলাম বলেন, ওসির হুমকির ভয়ে আমি মানসিকভাবে বিপর্যস্ত হয়ে পড়ি। এ অবস্থায় আমার ও পরিবারের ভবিষ্যতের কথা চিন্তা করে আমার স্ত্রী টেনশনে পড়ে যান। পরে আমার স্ত্রী পুলিশ কমিশনার স্যারের কাছে গিয়ে পুরো ঘটনা অবহিত করেন। এরপর আমাকে কাশিয়াডাঙ্গায় থানায় বদলি করা হয়। রোববার কাশিয়াডাঙ্গায় থানায় যোগ দিয়েছি।

এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ন্যায় বিচার পাবো কিনা তা নিয়ে চরম শংকায় রয়েছি। ভয়ে আমার পক্ষে কেউ সাক্ষি দিবে না। তবে পুলিশ কমিশনার স্যার আমাকে আশ্বস্ত করেছেন, তিনি এ ব্যাপারে যথাযথ ব্যবস্থা নেবেন। অপর এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, কোনো যৌক্তিক কারণ ছাড়াই আমাকে অন্যায়ভাবে অশ্লীল ভাষায় গালিগালাজ ও প্রাণনাশের হুমকি দেওয়া হয়েছে। তিনি তদন্তসাপেক্ষে এর সুষ্ঠু বিচার চান।

অভিযোগ প্রসঙ্গে জানতে চাইলে বোয়ালিয়া মডেল থানার ওসি নিবারণ চন্দ্র বর্মণ বলেন, কনস্টেবল মনিরুল থানার মুন্সির দায়িত্ব পালন করেন। কিন্তু তিনি ঠিকমত দায়িত্ব পালন করেন না। তার কাজে চরম গাফিলতি রয়েছে। তাই তাকে দায়িত্ব থেকে অব্যাহতি দেওয়া হয়েছে। এক প্রশ্নের জবাবে ওসি বলেন, অশ্লীল গালিগালাজ ও প্রাণনাশের হুমকি দেওয়ার অভিযোগ সঠিক নয়। আমি কেন তাকে হুমকি দেবো। কাজে গাফেলতির কারণে সামান্য বকাবকি করেছিলাম মাত্র। তিনি প্রশ্ন রেখে বলেন, একজন ওসি কী তার অধীনস্থ কনস্টেবলকে প্রাণনাশের হুমকি দিতে পারেন।

জানতে চাইলে তদন্তের দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আরএমপির উপ-কমিশনার রশিদুল হাসান বলেন, বিষয়টি নিয়ে তদন্ত করছি। দ্রুত সময়ের মধ্যে তদন্ত প্রতিবেদন দেওয়া হবে। তবে এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, কতদিনের মধ্যে প্রতিবেদন জমা দিতে হবে সে সম্পর্কে সুনির্দিষ্টভাবে কিছু বলা হয়নি। অপর এক প্রশ্নের জববে তিনি বলেন, প্রাথমিকভাবে ঘটনার সত্যতা সম্পর্কে এখন কিছুই বলা সম্ভব নয়। তদন্ত শেষ না হওয়া পর্যন্ত কিছু বলা যাচ্ছে না।

দর্শনা নিউজ 24/এইচ জেড

নিউজটি শেয়ার করুন..

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর..