1. nasiralam4998@gmail.com : admi2017 :
শনিবার, ১৩ এপ্রিল ২০২৪, ১১:৪৩ পূর্বাহ্ন

নিউজিল্যান্ডকে উড়িয়ে দিল পাকিস্তান

  • আপডেট টাইম : শনিবার, ৮ অক্টোবর, ২০২২
  • ৮৯ বার
নিউ জিল্যান্ডকে উড়িয়ে দিল পাকিস্তান
ছবিঃ সংগৃহীত

অধিনায়ক বাবর আজমের ব্যাটে ভর করে ত্রিদেশীয় সিরিজের দ্বিতীয় ম্যাচে দারুণ জয় পেয়েছে পাকিস্তান। নিউ জিল্যান্ডকে হারিয়েছে ৬ উইকেটে। আগে ব্যাট করে নিউ জিল্যান্ডের করা ১৪৭ রান বাবরবাহিনী ১০ বল ও ৬ উইকেট হাতে রেখে ছুঁয়ে ফেলে। বাবর ৫৩ বলে ১১ চারে ৭৯ রানে অপরাজিত থাকেন। তার সঙ্গে ১০ রানে অপরাজিত থাকেন হায়দার আলী।

সংক্ষিপ্ত স্কোর:
পাকিস্তান: 
১৪৯/৪ (১৮.২ ওভারে)।
ব্যাটিং: বাবর ৭৯* ও হায়দার ১০*।
আউট: ৩৬/১ (রিজওয়ান ৪), ৩৭/২ (মাসুদ ০), ৯৩/৩ (শাদাব ৩৪), ১২৪/৪ (নাওয়াজ ১৬)
বোলিং: 
সাউদি ২/২১, টিকনার ২/৪২।

নিউ জিল্যান্ড: ১৪৭/৮ (২০ ওভারে)।
ব্যাটিং: ট্রেন্ট বোল্ট ২* ও সাউদি ১*।
আউট: ১৬/১ (অ্যালেন ১৩), ৭৭/২ (কনওয়ে ৩৬), ৮৮/৩ (উইলিয়ামসন ৩০), ১৩০/৪ (ফিলিপস ১৮), ১৩৭/৫ (নিশাম ৫), ১৩৭/৬ (ব্রাসওয়েল ০), ১৪২/৭ (চ্যাপম্যান ৩২) ও ১৪৪/৮ (সোধি ২)।
বোলিং: ওয়াসিম ২/২০, রউফ ৩/২৮, ধানি ১/২২, নাওয়াজ ২/৪৪।

ফল: পাকিস্তান ৬ উইকেটে জয়ী

বাবরের ফিফটি, ফিরলেন শাদাব: তৃতীয় উইকেটে বাবর আজমের সঙ্গে ৪২ বলে ৬১ রানের জুটি গড়েন শাবাদ খান। দলীয় ৯৩ রানের মাথায় ২২ বলে ২ চার ও ২ ছক্কায় ৩৪ রান করে আউট হন তিনি সাউদির বলে। তবে বাবর আজম তুলে নেন তার টি-টোয়েন্টি ক্যারিয়ারের ২৮তম ফিফটি। তার ব্যাটে ভর করে জয়ের পথে এগোচ্ছে পাকিস্তান।

বাবর-শাদাবের ব্যাটে এগোচ্ছে পাকিস্তান: অধিনায়ক বাবর আজম ও অলরাউন্ডার শাদাব খানের ব্যাটে এগোচ্ছে পাকিস্তান। তাদের দুজনের ব্যাটে ভর করে ১০ ওভার শেষে পাকিস্তানের রান দাঁড়িয়েছে ২ উইকেটে ৮৩। বাবর ৪৮ ও শাদাব ২৯ রানে ব্যাট করছেন।

পাওয়ার প্লে-তে ২ উইকেট হারালো পাকিস্তান: ত্রিদেশীয় সিরিজের দ্বিতীয় ম্যাচে নিউ জিল্যান্ডের ছুড়ে দেওয়া ১৪৮ রানের টার্গেটে ব্যাট করছে পাকিস্তান। পাওয়ার প্লে-তে তারা দুই উইকেট হারিয়ে ৪৪ রান সংগ্রহ করেছে। আউট হয়েছেন মোহাম্মদ রিজওয়ান ও শান মাসুদ। দলীয় ৩৬ রানের মাথায় টিম সাউদির বলে এলবিডব্লিউ হয়ে ফেরেন রিজওয়ান। তিনি ১২ বলে ৪ রান করে যান। এরপর ৩৭ রানের মাথায় ব্লেয়ার টিকনারের বলে ডাক মেরে ফেরেন মাসুদ।

দেড়’শও করতে পারলো না নিউজিল্যান্ড: পাকিস্তানের নিয়ন্ত্রিত বোলিংয়ে দেড়’শ রানও করতে পারেনি নিউ জিল্যান্ড। ৮ উইকেট হারিয়ে তাদের সংগ্রহ ১৪৭ রান। দ্বিতীয় ম্যাচ জিততে পাকিস্তানকে করতে হবে ১৪৮ রান। ডেভন কনওয়ে সর্বোচ্চ ৩৬ রান করেন। এছাড়া মার্ক চ্যাপম্যান ৩২ ও কেন উইলিয়ামসন ৩১ রান করেন। বল হাতে পাকিস্তানের হারিস রউফ ৩টি, মোহাম্মদ ওয়াসিম ও মোহাম্মদ নাওয়াজ ২টি করে উইকেট নেন।

পাকিস্তানের নিয়ন্ত্রিত বোলিংয়ে চাপে নিউজিল্যান্ড: পাকিস্তানের নিয়ন্ত্রিত বোলিংয়ে চাপে পড়ে যায় নিউ জিল্যান্ড। ১৮তম ওভারে শাহনেওয়াজ ধানি আউট করেন গ্লেন ফিলিপসকে। তিনি ১৭ বলে ১৮ রান করেন। এরপর ১৩৭ রানের মাথায় জেমস নিশাম ও মিচেল ব্রাসওয়েল ফিরেন ‍৫ ও শূন্যরানে হারিস রউফের বলে। সেট হয়ে মারতে থাকা চ্যাপম্যান ৩ চার ও ২ ছক্কায় ৩২ রান করে ফেরেন রউফের তৃতীয় শিকার হয়ে। শেষ ওভারে দলীয় ১৪৪ রানে ইশ সোধিকে নিজের দ্বিতীয় শিকারে পরিণত করেন ওয়াসিম। তাতে দলীয় সংগ্রহ দেড়’শ হওয়ার আগেই থেমে যায় কিউইদের ইনিংস।

কনওয়ে-উইলিয়ামসন সাজঘরে: অ্যালেন ফেরার পর কনওয়ে ও কেন উইলিয়ামসন জুটি বাঁধেন। তারা দুজন দ্বিতীয় উইকেটে ৫২ বলে ৬১ রান তোলেন। দলীয় ৭৭ রানের মাথায় ভাঙে এই জুটি। মোহাম্মদ নাওয়াজের বলে হায়দার আলীর হাতে ক্যাচ দিয়ে আউট হন কনওয়ে। ৩৫ বলে ২ চার ও ২ ছক্কায় ৩৬ রান করে ফেরেন তিনি। এরপর ৮৮ রানের মাথায় ফেরেন সেট ব্যাটসম্যান উইলিয়ামসন। ৩০ বলে ৩১ রান করে তিনিও নাওয়াজের বলে বোল্ড হন।

অ্যালেনকে ফেরালেন ওয়াসিম: টস জিতে ব্যাট করতে নেমে শুরুতেই উইকেট হারিয়েছে নিউ জিল্যান্ড। মোহাম্মদ ওয়াসিমের করা তৃতীয় ওভারের তৃতীয় বলে কট অ্যান্ড বোল্ড হয়ে ফিরে যান ফিন অ্যালেন। তিনি ৮ বলে ৩ চারে ১৩ রান করেন। নতুন ব্যাটসম্যান হিসেবে ক্রিজে এসেছেন কেন উইলিয়ামসন।

টস: ত্রিদেশীয় সিরিজের দ্বিতীয় ম্যাচে মুখোমুখি হয়েছে নিউ জিল্যান্ড ও পাকিস্তান। ক্রাইস্টচার্চে টস জিতেছেন কিউই অধিনায়ক কেন উইলিয়ামসন। তিনি অবশ্য ব্যাট করার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন।

বাংলাদেশের বিপক্ষে প্রথম ম্যাচে জয় পাওয়া পাকিস্তান অপরিবর্তিত একাদশ নিয়ে মাঠে নেমেছে। অন্যদিকে প্রথম সন্তানের বাবা হচ্ছেন নিউ জিল্যান্ডের অলরাউন্ডার মিচেল স্যান্টনার। তাই তিনি দলে নেই। তার পরিবর্তে দলে রাখা হয়েছে ব্লেয়ার টিকনারকে। ব্ল্যাক ক্যাপসদের দলে আজ একমাত্র জেনুইন স্পিনার ইশ সোধি।

ইনজুরির কারণে ত্রিদেশীয় এই সিরিজে নেই অলরাউন্ডার ড্যারিল মিচেল ও লোকি ফার্গুসনও।

পাকিস্তানের একাদশ: বাবর আজম (অধিনায়ক), মোহাম্মদ রিজওয়ান, শান মাসুদ, ইফতিখার আহমেদ, শাদাব খান, হায়দার আলী, মোহাম্মদ নাওয়াজ, মোহাম্মদ ওয়াসিম, হারিস রউফ ও শাহনাওয়াজ ধানি।

নিউজিল্যান্ড একাদশ: ডেভন কনওয়ে, ফিন অ্যালেন, কেন উইলিয়ামসন (অধিনায়ক), গ্লেন ফিলিপস, মিচেল ব্রাসওয়েল, মার্ক চ্যাপম্যান, জেমস নিশাম, টিম সাউদি, ট্রেন্ট বোল্ট, ব্লেয়ার টিকনার ও ইশ সোধি।

নিউজটি শেয়ার করুন..

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর..