1. nasiralam4998@gmail.com : admi2017 :
বৃহস্পতিবার, ৩০ মে ২০২৪, ০৯:১০ পূর্বাহ্ন

ম্যান সিটিকে হারিয়ে খেতাব জয় চেলসির

  • আপডেট টাইম : রবিবার, ৩০ মে, ২০২১
  • ৩১৮ বার
খেতাব জয় চেলসির
ফাইল ফটো

ক্রীড়া ডেস্ক : ম্যাচের বয়স ৪২ মিনিট বেন চিলওয়েলের বাড়ানো বল পেয়ে ম্যাসন মাউন্ট পাশ বাড়ান হাভার্টেজকে। হাভার্টেজের কিক এডারসনের গায়ে লাগার পর আবার ফিরে আসে তার পায়ে। এবার সামনে ফাঁকা গোলপোস্ট। আলতো করে ঠেলে দিলেন জার্মান মিডফিল্ডার। এটিই চ্যাম্পিয়নস লীগে হাভার্টেজের করা প্রথম গোল। আর প্রথম গোলটিই এলো ফাইনাল মঞ্চে। কাই হাভার্টেজের একমাত্র গোলেই টুখেলের চেলসি জিতে নিলো শিরোপা। অন্যদিকে তীরে এসে তরি ডুবলো গার্দিওলা বাহিনীর। প্রথম চ্যাম্পিয়নস লীগ জয়ের দোরগোড়ায় এসেও খালি হাতে পোর্তো থেকে ফিরতে হচ্ছে তাদের।

অল ইংলিশ ফাইনাল নিয়ে উত্তেজনা ছিলো তুঙ্গে। ফাইনালের আগে দু’বারের দেখায় দুই বারই জিতেছে ব্লুজরা। দুরন্ত ছন্দে থাকা চেলসি গোলরক্ষক এডুয়ার্ড মেন্ডি এবং মাঝ মাঠের প্রধান অস্ত্র এন’গলো কন্তে চোট সারিয়ে ফিরে এসেছিলেন। সেনেগালের মেন্ডি প্রথম আফ্রিকান গোলরক্ষক হিসেবে উয়েফা চ্যাম্পিয়নস লীগের ইতিহাসে ফাইনাল খেললেন। অন্যদিকে এন’গলো কন্তের সম্পর্কে আর কতোটুকু বলা যায়। লিসেস্টারের হয়ে প্রিমিয়ার লীগ জিতেছেন, চেলসির হয়ে প্রিমিয়ার লীগ জিতেছেন, দেশের হয়ে বিশ্বকাপ জিতেছেন, চেলসির হয়ে ইউরোপা লীগ জিতেছেন, এবার ইউসিএলও নিজের ঝুলিতে ভরে নিলেন।

মরশুমের মাঝপথে ফ্র্যাঙ্ক ল্যাম্পার্ডকে বিদায় জানিয়ে স্ট্যামফোর্ড ব্রিজে চেলসি আনেন পিএসজির প্রাক্তন কোচ টমাস টুখেলকে। টুখেলের অধীনে চেলসি যেনো নতুন করে অক্সিজেন ফিরে পায়। ক্রমাগত হারতে থাকা দলটি প্রিমিয়ার লীগের শীর্ষ চারে থেকে আগামী মরশুমে চ্যাম্পিয়নস লীগের যোগ্যতা অর্জন করেছে। শুধু যোগ্যতাই নয়, আজকের পর ইউসিএলে ডিফেন্ডিং চ্যাম্পিয়ন হিসেবে মাঠে নামবে ব্লুজরা।

মেগা ফাইনালে শুরু থেকেই ঝাঁপিয়ে পড়ে দুই দল। শুরুতেই এগিয়ে যেতে পারতো চেলসি। তবে চিলওয়েলের পাস থেকে সহজ গোল হাতছাড়া করেন টিমো ওয়ের্নার। এর ঠিক পরেই কন্তে দুরন্ত এক হেড নিলেও তা গোল পোস্টের উপর দিয়ে চলে যায়। এর অল্প সময় পর আবারও একবার ওয়ের্নারের কাছে সুযোগ আসে। তবে সেটিও হাতছাড়া হয়। অন্যদিকে প্রতি আক্রমণ করে সিটিও।

প্রথমার্ধের ৩৯ মিনিটে আবার বড় ধাক্কা খায় চেলসি। চোট পেয়ে মাঠ ছাড়তে হয় থিয়াগো সিলভাকে। তবে এর ঠিক তিন মিনিট পরেই উত্‍সব শুরু হয় ব্লুজ শিবিরে। চ্যাম্পিয়নস লীগের প্রথম গোলটি ফাইনাল মঞ্চেই করে ফেলেন হাভার্টেজ।

দ্বিতীয়ার্ধের ৬০ মিনিটে গুরুতর চোট পান ম্যান সিটি অধিনায়ক কেভিন ডি ব্রুইন। চোখের জল নিয়ে মাঠ ছাড়েন তিনি। এরপর অনেক চেষ্টা করেও গোল পরিশোধ করতে পারেনি গার্দিওলারা। অন্যদিকে প্রথম আমেরিকান ফুটবলার হিসেবে চ্যাম্পিয়নস লীগ ফাইনাল খেললেন ক্রিস্টিয়ান পুলিসিক। ৬৬ মিনিটে ওয়ের্নারের বদলি হিসেবে নামেন তিনি।

দর্শনা নিউজ 24/এইচ জেড

নিউজটি শেয়ার করুন..

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর..